ক্ষমা চাইলেন ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি

সম্প্রতি ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভার একটি অডিও রেকর্ড ভাইরাল হয়েছে। অডিওতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের রুমে গিয়ে গালমন্দ করতে শোনা যায় তাকে। রুম দখল নিয়ে গলায় পা দিয়ে ধরাসহ নানা হুমকির একটি কল রেকর্ড ফাঁস হয়।

সেই কল রেকর্ড ফাঁসের পরই তামান্না জেসমিন রিভা এক ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে ক্ষমা চেয়েছেন। সেই পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মীর সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক। এরা আমার পরিবারের সদস্য ছাড়া অন্য কিছু নয়। একান্ত ব্যক্তিগত পরিবেশে হলেও দায়িত্বশীল জায়গা থেকে অসংযত ভাষার প্রয়োগ আমার অপরাধ হয়েছে বলে আমি স্বীকার করছি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আমাকে এমন শিক্ষা দেয় না তাই সংগঠনের প্রতি আমি ক্ষমাপ্রার্থী।’

এর আগে শুক্রবার অডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। অডিও রেকর্ডে শোনা যায়, ‘তোরা লিগ্যাল তাতে আমার… গেছে, কোন হেডম দেখাইতে আসিস তোরা আমার পলিটিকাল রুমে। তোরা লিগ্যাল থাকবি কি, কি থাকবি? সেটা তোদের বিষয় কে কে টাকা জমা দিছিস? আমারে দিছিস? আর কে লিগ্যাল?’

এ সময় সুমনা মীর নামে এক মেয়েকে গালমন্দ করতে শোনা যায় ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতিকে। তিনি বলেন, ‘বুঝিস না পলিটিকাল রুমে থাকিস৷ তোদের লিগ্যাল করাইছে তাতে আমার …. কি ? আমি যদি একটা সিট না দিই, ২০২ থেকে তোদের কোন বাপ সিট দেবে? ম্যাডামরা দেবে, ক্ষমতা আছে ম্যাডামদের! ম্যাডামদের ক্ষমতা আছে আমাদের রুম থেকে একটা মেয়েকে বের করার? ইডেন কলেজের প্রিন্সিপালেরও ক্ষমতা নেই এই রুম থেকে একটা মেয়েকে বের করার৷একদম গলায় পাড়া দিয়ে ধরতে ইচ্ছা করতেছে৷আগামী এক ঘণ্টার মধ্যে যেই রুমে বলব সেই রুমে যাবি৷ আমার সাথে হেডম দেখাইতে আসে।’

ইডেন কলেজ প্রশাসনকে চ্যালেঞ্জ করে বলতে শোনা যায়, ‘একটা সিঙ্গেল মেয়ে যদি ওই রুমে এসে কন্ট্রোল করতে চাস, সে হোক নেত্রী, ইডেন কলেজের প্রিন্সিপাল ম্যামও কোনো মেয়ে দিতে পারবে না৷ এইটুকু সেন্স থাকা উচিত ছিল রুমটা যেহেতু ইডেন কলেজের প্রেসিডেন্ট নিয়ে নিছে, ইডেন কলেজের প্রেসিডেন্টের উপরে আর কেউ নেই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.